ভালো ছাত্র হওয়ার উপায়

হয়তো আপনি একজন অভিভাবক যে কিনা তার সন্তানের জন্য এমন কিছু টিপস খুঁজছেন যার দ্বারা সে ভাল একজন ছাত্র হতে পারে।

 

আবার আপনিই হয়তো সেইজন যিনি একজন ভাল ছাত্র হতে চাইছেন এখন এর উপায় খুঁজছেন যে কিভাবে তা হওয়া যায়।

 

আপনি যেই হোন না কেন আজ আমি ভাল ছাত্র হওয়ার কার্যকরী বেশ কিছু উপায় আপনাদের সাথে শেয়ার করবো যা অনুসরণ করলে আপনার সন্তান বা আপনি একজন ভাল ছাত্র হতে পারবে আশা করা যায়।

 

তো চলুন আর কথা না বাড়িয়ে একে একে উপায়গুলো নিয়ে আলোচনা করতে থাকি।

 

ভালো ছাত্র হওয়ার উপায়

অনেকেরই একটা ভুল ধারণা আছে যে ভাল ছাত্র হওয়া মনে হয় একটা গড গিফটেড জিনিস।

 

মহান আল্লাহ তা’আলা সকলেই সমান ব্রেইন দিয়ে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন কিন্তু আমরা কেউ সেটা ব্যাবহার করি কেউ করি না।

 

তো আজ আমরা ভালো স্টুডেন্ট হবার অনেক উপায় রয়েছে এর ভিতর আমি কিছু উপায় সহজ উপায় যা আপনারা সহজে করতে পারবেন সেগুলি শেয়ার করবো আশা করি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়বেন

 

রুটিন করা

ভালো স্টুডেন্ট হবার মুল মন্ত্র হল রুটিন ফলো করা। আপনাকে প্রথমে খুব ভালো একটি রুটিন বানাতে হবে। এরপর কখন কোন সাবজেক্ট পরবেন সেটিরও রুটিন বানাবেন। এতে করে হবে আপনার পড়ার একটি নির্দ্দিস্ট সময় ফিক্সড হবে এবং ভালোভাবে প্রায় সব সাবজেক্ট পড়তে পারবেন। আর অনেক সময় ধরে একই সাবজেক্ট পড়লে বোরিং ফিল হতে পারে এবং পড়তে ইচ্ছে করবেনা যার ফলে মাঝে মাঝে সাবজেক্ট চেঞ্জ করে পড়লে পড়াও ভালো হবে এবং আপনার বোরিংও ফিল হবে না। আরেকটি বিষয় বলে রাখা ভালো আপনি যতটুকু সময় পড়বেন মনোযোগ সহকারে পড়ার চেস্টা করবেন এতে করে হবে আপনার পড়া খুন দ্রুত মুখস্থ হবে।

 

মুখস্থ করা

অনেকের মুখস্ত করার ক্ষমতা অনেক বেশি এদের অল্প পড়লেই ভালো মুখস্ত হয়ে যায়। কিন্তু এটির একটি খারাপ দিক রয়েছে তা হল মুখস্থ বিদ্যা আপনার চিন্তাশক্তিকে অকেজো করে দেয়। যার ফলে আপনার চিন্তাশক্তি কাজ করে না। না বুঝে মুখস্থ করার মাঝে পড়ার কোনো আনন্দ থাকে না। পড়া তখন ভালো মুখস্ত হলেও পরে আর স্মৃতিতেও ধরে রাখা যায় না । তবে কিছু কিছু বিষয় মুখস্থ করতেই হয় এটা বাঞ্চনিয়। যেমন- কিছু তারিখ,সাল, ম্যাথের সূত্র এসব মুখস্থ না করে উপায় নেই। এই গুলি মুখস্ত করতেই হবে অন্য কোনো উপায় নেই। কিন্তু যেইসব জিনিস বোঝার মতো সে গুলি বুঝে পড়াই শ্রেয়। এতে করে আপনি পড়ে যেমন মজা পাবেন ঠিক তেমন পড়া অনেকদিন মনেও থাকবে। তাই যেকোন বিষয় মুখস্থ করার আগে বিষয়টি কয়েকবার পড়ে বুঝে নিতে হবে । তাহলে সেটা মনে রাখা অনেক সহজ হবে ।

পড়ার পাশাপাশি লেখার অভ্যাস খুবই জরুরি এতে করে আপনার লেখা খুব দ্রুত হবে এবং লেখাও বেশ সুন্দর হয়ে উঠবে।

 

নোট তৈরি

নোট তৈরির আগে একটি কথা না বল্লেই নয় সেটি হল আপনাকে ক্লাসে সামনের বেঞ্চে বসার ট্রাই করতে হবে কারণ সামনে বসলে স্যারদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনতে পারবেন। স্যারদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনলেই এবং টপিকটা ভালোভাবে বুঝলে আপনি ভালো একটি নোট তৈরি করতে পারবেন। আপনাকে মনে রাখতে হবে ভালো রেজাল্টের জন্য নোটের বিকল্প নেই । আসলে যেকোনো শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে অত্যন্ত সহজভাবে পাঠ উপস্থাপন করার চেষ্টা করেন ।তারা যত সহজ করে স্টুডেন্টদের বোঝানো যায় সেই চিন্তাই করে। তাই স্টুডেন্টরা যদি সেই লেকচার ভালোভাবে নোট নিতে পারে তবে পরীক্ষায় ভালো কাজ দেয় এবং ভালো রেজাল্ট করা সম্ভব । তাই ক্লাস নোট ভালো রেজাল্টের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

 

স্বাস্থ্য সচেতন

আপনি ভালো ছাত্র সারাদিন সারারাত শুধু পড়লেন নিজের স্বাস্থ্যের দিকে কোনো খেয়াল রাখলেন না তাইলে হবে না। আপনাকে একজন ভালো ছাত্র হতে হলে স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখা জরুরি ।শরীরের ভালো থাকলে মন ভালো থাকবে আর মন ভালো থাকলে পড়াশোনায় মনোযোগ দেয়া যাবে। যার জন্য শুধু পড়লেই হবেনা স্বাস্থ্যেরও যত্ন নিয়ে হবে সময় মতো খাওয়া দাওয়া করতে হবে। তাই প্রতিদিন অত্যন্ত ৭-৮ঘন্টা ঘুমাতে হবে। সুষম খাবার গ্রহণ করতে হবে ।তাছাড়া কিছু সময়ের ব্যায়াম বা খেলাধুলা করা উচিত। এছাড়াও বাইরে ঘুরতে যাওয়া উচিত এতে করে শরীর মন দুইটাই ভালো থাকবে।

 

তাছাড়া পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন শখ থাকলে সেগুলিও করতে হবে। এই গুলিও পড়া লেখার মত জরুরি কারণ এই গুলি আপনার সৃজনশীলতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে। একই সাথে আপনার মেধা বিকাশ করবে। যার জন্য সর্বোপরি আত্মউন্নয়ন ও অধ্যাবসায়ের কোনো বিকল্প নেই।

 

রিভিশন

অনকেই এই ভুলটি করেন এক্সামের আগে রিভিশন দেয়না। এইটি খুব একটি মারাত্মক ভুল এক্সাম এর আগে রিভিশন দিয়া খুবই জরুরি এটি ছাড়া আপনি এক্সাম ভালোভাবে দিয়ে পারবেন না। এই বিষয়টি ভালো ফল অর্জনের পূর্বশর্ত । তাই এ বিষয়কে ভালোভাবে গুরুত্ব দিলে অবশ্যই ভালো ফল করা সম্ভব । পরীক্ষায় ভালো ফল করতে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি হিসেবে আংশিক পড়া বিষয়গুলো আবারও রিভিশন দিতে হবে এতে করে এক্সাম ভালো হবে। আশাকরি আপনাদের বিষয়টি ক্লিয়ার করতে পেরেছি

 

তো আজ এই পর্যন্ত আশা করি ভাল স্টুডেন্ট হবার উপায় সম্পর্কে ক্লিয়ার একটি ধারনা দিতে পেরেছি। এর পরেও যদি কোন বিষয় নিয়ে আপনার মনে প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জানাবেনএবং পোস্টটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।
ধন্যবাদ

Leave a Reply