হ্যালো বন্ধুরা। কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমার জন্মভূমি খুলনা জেলার নামকরণের ইতিহাস আজ আমি আপনাদের জানাবো।

 

তার আগে খুলনা জেলার পরিচিতি সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত ভাবে জেনে নেওয়া যাক। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলে অবস্থিত খুলনা জেলা। ৪৩৯৫ বর্গ কিলোমিটারের এই জেলায় রয়েছে প্রায় ২৩৭৮৯৭১ জন মানুষ। যার মধ্যে মুসলিম ধর্মালম্বী আছে ১৮২১১১৯ জন, হিন্দু ধর্মালম্বী আছে ৫৪০৬৯৩ জন, বৌদ্ধ আছে ১৫৮১৮ জন, খ্রিস্টান আছে ২৮৯ জন এবং বাকি ১০৫২ জন হল অন্যান্য ধর্মালম্বী।

 

খুলনা জেলার জনসংখ্যার মধ্যে প্রায় ১২৪৪২২৬ জনই পুরুষ এবং বাকি ১১৩৪৭৪৫ জন হল মহিলা।। নদীমাতৃক দেশ আমাদের এই বাংলাদেশ। আর খুলনা জেলায়ই রয়েছে অনেক নদী। এই যেমনঃ আঠারোবাঁকি নদী, পশুর নদী, শিবসা নদী, কপোতাক্ষ নদী, রূপসা নদী, ভৈরব নদী, নবগঙ্গা নদী, ভদ্রা, চিত্রা, ডাকাতিয়া নদী, কাজীবাছা, বুড়িভদ্রা নদী, শাকবাড়িয়া, শৈলমারি নদী, কাঁকরী নদী ইত্যাদি।

 

খুলনা জেলায় রয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও বিখ্যাত সুন্দরবন। যে বন শুধু বাংলাদেশেই নয় সারা বিশ্বে পরিচিত। যার অপর নাম ম্যানগ্রোভ বন। বিপুল পরিমাণে জীবজন্তু এবং গাছ-গাছালিতে ভরপুর এই বন। রয়েল বেঙ্গল টাইগার এই বনের রাজা।

 

খুলনা জেলার ইতিহাস

খুলনার নামকরণের ইতিহাস নিয়ে বিভিন্ন জনের বিভিন্ন মতবাদ রয়েছে। পীর খানজাহান আলী প্রায় ৬০০ বছর আগে খুলনা জেলায় আসেন ধর্ম প্রচারের জন্য। আর পীর খানহাজানই প্রথম সুন্দরবনের এই এলাকায় লোকের সমাগম ঘটান। তাই তো রূপসা ও ভৈরব নদীর কুলে অবস্থিত এই খুলনা জেলায় হযরত পীর খানহাজান আলী (র) এর অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে।

 

এই জেলার নামকরণের অনেক মতবাদ থাকলেও সবচেয়ে বেশি প্রচলিত হচ্ছে, এই এলাকায় বসবাসরত এক ধনপতী সাওদাগরের দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম ছিল খুল্লনা। ধনপতী সাওদাগর তার এই স্ত্রীর নামে একটি মন্দির নির্মাণ করেন। যেটা ছিল একটি কালী মন্দির। যার নাম দেওয়া হয় খুল্লনেশ্বরী কালী মন্দির। আর এই নাম থেকেই নাকি খুলনা নামের উৎপত্তি হয়েছে।

 

আবার অনেকে মনে করেন যে, “ফলমাউথ” নাম করে একটি জাহাজ ছিল। সেই জাহাজের নাবিকদের উদ্ধারকৃত রেকর্ডে একটি শব্দ খুঁজে পাওয়া যায়। যে শব্দটা ছিল “Culnea” । এই শব্দ থেকেই খুলনার নামকরণ করা হয়েছে।

 

অন্যদিকে আরেকটি মতবাদ খুব প্রচলিত। সেটা হচ্ছে, ইংরেজদের শাসনামলে তাদের কাছে থাকা মানচিত্রে নাকি এই অঞ্চলের নাম “Jessore-culna” উল্লেখ ছিল। আর সেই নাম থেকেই নাকি খুলনা জেলার নামকরণ করা হয়েছে।

 

এই রকম আরো অনেক মতবাদ রয়েছে। কিন্তু মূলত কোন নির্দিষ্ট কারণ এখনো খুঁজে পাওয়া যায় নি। যদিও অনেক মতবাদের মধ্যে এই ৩ টি মতবাদ বেশি প্রচলিত।

 

তো এই ছিল খুলনা জেলার নামকরণের ইতিহাস। এই সকল মতবাদের মধ্যে কোনটি আপনি মানবেন সেটা একান্তই আপনার বিষয়। ভাল থাকবেন সবাই।